0 votes
409 views
in পবিত্রতা (Purity) by (133 points)
edited by
পেটের সমস্যার কারণে যদি কিছুক্ষণ পর পর পায়ু বের হয়,তাহলে নামাজ আদায় করার বিধান কী?

১)যদি ২/৩ মিনিট পর পরই বের হয় তাহলে নামাজ আদায় করব কীভাবে?

২)যদি এতটুকু সময় পর পর বের হয় যে ২/৪ রাকাত নামাজ আদায় করা যায়, কিন্তু পুরো ওয়াক্তের নামাজ মানে সুন্নত,ফরজ সব এক ওযু দিয়ে আদায় করা যায় না,তাহলে করণীয় কী?

৩)এমন যদি হয় যে নামাজের মাঝখানে শেষবারের মতো আসল কিন্তু আমার মনে হলো যে,একটানা আসতেই থাকবে , কিন্তু আসলৈ ঐটার পর আর আসল না,তাহলে করণীয় কী?

৪)এই অবস্থাগুলোতে যদি ওযু ছাড়া ই নামাজ পরা যায়,তাহলে কী ওযু ছাড়া কোরআন তেলাওয়াত ও করা যাবে?

৫)জোর করে চাপাচাপি করে আটকে রাখলে কী নামাজ হবে?

উক্ত বিষয়গুলো বিস্তারিতভাবে জানানোর অনুরোধ রইল।

1 Answer

0 votes
by (148,480 points)
বিসমিহি তা'আলা

জবাবঃ-
ভূমিকা
কোনো অসুস্থ ব্যক্তি শরয়ীভাবে মা'যুর প্রমাণিত হওয়াজ জন্য শর্ত হলো,
شرط ثبوت العذر ابتداء أن يستوعب استمراره وقت الصلاة كاملا وهو الأظهر كالانقطاع لا يثبت ما لم يستوعب الوقت كله-
শরয়ীভাবে মা'যুর প্রমাণিত হওয়ার জন্য কোনো নামাযের শুরু থেকে শেষ ওয়াক্ত পর্যন্ত উযর স্থায়ী থাকা শর্ত।(ফাতাওয়ায়ে হিন্দিয়া-১/৪০)

সুতরাং যদি কোনো একদিন কোনো একটি নামাযের সম্পূর্ণ ওয়াক্ত আপনার এমনভাবে অতিবাহিত হয় যে,বায়ু উযরের কারণে ফরয নামায পড়া আপনার জন্য সম্ভবপর না হয়,তাহলে আপনি মা'যুর। অন্যথায় শরয়ী ভাবে মা'যুর প্রমাণিত হবেন না।

কেউ শরয়ীভাবে মা'যুর প্রমাণিত হলে,তার জন্য প্রতি ওয়াক্তে একটি ওজুই যথেষ্ট।আর শরয়ীভাবে মা'যুর প্রমাণিত না হলে,তখন প্রতি নামাযের জন্য পৃথক পৃথক ওজু করতে হবে।নামাযে যখনই ওজু চলে যাবে,তখন আবার ওজু করে নামাযকে পড়তে হবে।

(১)
আপনি যদি শরয়ী মা'যুর না হন,তাহলে নতুন করে ওজু করে বিনা তথা উক্ত নামাযকে যেখানে রেখে গিয়েছিলেন,ওজু করে পূনরায় সেথান শুরু করে নামাযকে সম্পন্ন করবেন।

(২)
এক্ষেত্রে আপনি শরয়ী মা'যুর নন।তাই নতুনকরে ওজু করে বিনা করবেন।

(৩)
নামাযে একবার বায়ূ চলে আসলেই নাসায ভঙ্গ হয়ে যাবে।

(৪)
কেউ শরয়ীভাবে মা'যুর প্রমাণিত হলে,তখন তাকে প্রতি ওয়াক্তের জন্য ওজু করতে হয়।সুতরাং এই ওয়াক্তের ভিতর সে যত ফরয ওয়াজিব মুস্তাহাব চাইবে, পড়তে পারবে।

(৫)
জোর করে চাপাচাপি করে বায়ূ আটকিয়ে রাখা মাকরুহ।বায়ূর উযর থাকলে চেয়ারে বসে নামায পড়ার রূখসত রয়েছে।

বিস্তারিত জানতে দেখুন-(কিতাবুন-নাওয়াযিল-৫/৪৯৯)

আল্লাহ-ই ভালো জানেন।

উত্তর লিখনে

মুফতী ইমদাদুল হক

ইফতা বিভাগ, Iom.


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

by
ওয়াক্তের পূর্ণ সময়ব্যাপী মাজুরের নিয়মে পড়বে কিনা এটা বোঝার জন্য তো কয়েকবার নামাজ পরে দেখতে হয়।মানে প্রথম ২ বার একই সমস্যার পর ৩য় বার যদি অজু সহ পরা যায়,তাহলে কি প্রতি  ওয়াক্তেই এভাবে ২/৩ বার করে নামাজ পরে দেখতে হবে?যার এধরণের সমস্যা কয়েক বছর যাবত আছে সেকি প্রতি ওয়াক্তে একবার অযু করে নামাজ পরলেই হবে?
by (148,480 points)
কোনো এক নামাযের পূর্ণ ওয়াক্ত ওযর স্থায়ী থাকলেই তিনি শরয়ী মা'যুর হিসেবে গণ্য হবেন।জাযাকুমুল্লাহ।

ﻓَﺎﺳْﺄَﻟُﻮﺍْ ﺃَﻫْﻞَ ﺍﻟﺬِّﻛْﺮِ ﺇِﻥ ﻛُﻨﺘُﻢْ ﻻَ ﺗَﻌْﻠَﻤُﻮﻥَ অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস করো, যদি তোমরা না জানো। সূরা নাহল-৪৩

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন উত্তর পাওয়া যায় কিনা। না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন।

Related questions

...