0 votes
907 views
in সুন্নাহ-বিদ'আহ (Sunnah and Bid'ah) by (0 points)
আসসালামু আলাইকুম ওয়া রাহমাতুল্লাহ, হযরত
একটা কথা প্রচলিত আছে যে, জুমআর দিনে আশিবার দরুদ পাঠ করলে আশি বছরের গুনাহ মাফ হয়। এই কথা কতটুকু সত্য??

1 Answer

+1 vote
by (245,840 points)
edited by
الجواب باسم ملهم الصدق والصواب حامدا ومصليا 
.
عن ابي ھریرة رضي الله عنھ : من صلي صلاة العصر في یوم الجمعة فقال قبل ان یقوم من مقامھ 
" اللھم صل علي محمد النبي الامي و علي الھ وسلم تسلیما غفرلھ ذنوب ثمانین عاما , وكتبت لھ 
عبادة ثمانین سنة
 হযরত আবু হুরাইরা (রাযি.) হতে বর্ণিত: রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইিহ 
ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন, যে ব্যক্তি  জুমার দিন  আসর নামাজর পর না উেঠ ওই 
স্থানে বসা অবস্থায় ৮০ বার নিম্নলিখিত দরুদ শরীফ পাঠ করেব, তার ৮০ 
বছরের গুনাহ মাফ সবে এবং ৮০ বছেরর নফল ইবাদতের  সওয়াব তার আমল নামায় 
লেখা হবে।
,
দরুদটি হলো : ‘আল্লাহুম্মা সাল্লি আলা মুহাম্মািদিনন নাবিয়্যিল উম্মিয়্যি
ওয়া‘আলা আলিহী ওয়াসাল্লিম তাসলীমা’।
,
.
তাখরীজুল হাদীস: হাদীসটি বর্ণনা করেন,  ইমাম ইবনে শাহীন (রহ.) তার কিতাবদ্বয় 
“ আফরাদ” এবং আত তারগীব ফি ফাযািয়িলিল আমাল ,(পৃ:২২), ইমাম দারাক্বুতনী 
(রহ.)তার কিতাব“ আফরাদ (৫০৯৫), ইমাম দাইলামী তার“ মুসনাদুল 
ফিরদাউস:২/৪০৮, “ আল ক্বওলুল বাদী‘ পৃ:২৮৪।
,
# হাদীসের হুকুম :
ونقل الإمام العراقي في ( تخریج أحادیث الإحیاء ) عن أبي عبد الله محمد 
موسى بن النعمان أنھ قال : حدیث حسن
ইমাম ইরাকী (রহ.) ইমাম গাযালী (রহ.) লিখিত কিতাব ইহইয়ায়ু উলূমীদ্দীন এর 
হাদীসের তাখরীজ করতে গিয়ে আবু আব্দিল্লাহ মুহাম্মদ ইবেন মূসা ইবেন নোমান 
থেক বর্ণনা কেরেছন তিনি বলেছেন  “হাদীসিট হাসান“
ইমাম দারাকুতনী (রহ.) বলেন غریب حدیث) হাদীসিট গরীব) (তিন অনেক বিশুদ্ধ 
সনেদর হাদীেসর ক্ষেত্রে ও এ পরিভাষাটি ব্যবহার করে থাকেন।

.
,
وعلق علیھ السخاوي في ( القول البدیع ) [ص 285 : [ ویحتاج إلى نظر . یعني : في إسناد الحدیث
أو تحسین ابن النعمان
ইমাম সাখাভী (রহ.) তার কিতাব আল ক্বওলুল বাদী‘র ২৮৫ পৃষ্টার টিকায় উল্লেখ  
করেন “ হাদীসিটর সনদ বা ইবেন নোমান কর্তৃক হাদীসেক হাসান বলার মধ্যে কিছু 
পর্যালোচনার মুখাপক্ষি। 
قال الألباني في السلسلة [ح 3804 : [ضعیف .
শেখ নািসরুদ্দীন আলবানী (রহ.) তার কিতাব সিলিসলাতুত দয়ীফায় বলেছন ‘ দূর্বল 
‘ (৩৮০৪)
মূলত: হাদীসিটি সহীহ নাকি দয়ীফ এ ব্যাপাের মুহাদ্দিসেদর মধ্যে  মতানৈক্য 
রয়েছে। 
,
তবে সমস্থ হাদীসিবশারদগণ ঐক্যমত যে , হাদীস যদি  দয়ীফ হয়; অধিক 
দয়ীফ না হয়; জাল না হয় ;তারগীব-তারহীবের ক্ষেত্রে হয়;বিধি-নিষেধের ক্ষেত্রে
না হয় ; উক্ত হাদীেসর উপর আমল করা যায়। 
,

.
তাই উক্ত হাদীসের উপর আমল করার চেষ্টা করি।
,
 আল্লাহ তাআলা আমাদের 
সবাইকে  উক্ত হাদিসের উপর আমল করার তাওফিক দান করেন। আমীন।
.
উত্তর লিখনে 
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ IOM      


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

------------------------
মুফতী ওলি উল্লাহ
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...