0 votes
48 views
in হালাল ও হারাম (Halal & Haram) by (2 points)
edited by
১। বর্তমান ইসলামি ধারার ব্যাংকের ট্রেনিং একাডেমীতে চাকুরী করা কি জায়েজ হবে?

এখানে শুধু মাত্র ব্যাংকিং (শরয়ী ও বি.ব্যাংকের) নিয়মাদি শিক্ষা দেয়া হয়া। (২। জায়েজ হলে কোন পদে চাকুরী করা যায়?)।

৩। এধারার চাকুরী পদত্যাগ করলে ব্যাংক (Pf,ssbf,pc,) ইত্যাদি খাতের জমানো যে টাকা কর্মকর্তাকে দেয় তা দিয়ে ব্যবসা করা কি ঠিক হবে?।

১। এখানে আমানত গ্রহণ প্রদান লেনদেন হয় না।

(শুধু মাত্র টেইনারদের সম্মানি প্রদান করে থাকে।

২। এ ট্রেনিং এর ব্যয় ভার হেড অফিস বহন করে থাকে।

৪। ইসলামী ব্যবসা নীতি সব হালাল হারাম শিক্ষায় দেয়,(যদিও আমরা জানি শাখা পর্যায় ৩০% এর বেশি শরয়ী বিধান মানা হয় না।)

সার কথা সেহেতু ইসলামি ব্যাংক ব্যবস্থা তাই ট্রেনিং একাডেমী হালাল হারাম সুদ শরয়ি সব বিষয়ের শিক্ষা/জ্ঞান/ট্রেনিং দেয়া হয়, (শাখা ইত্যাদি পর্যায় ৩০% ব্যাংক শরয়ি বিধান মানেনা সকল ট্রেইনার এবং সেটা  কর্মকর্তা জানেন মানেন।
by (2 points)
45018 প্রশ্নের উত্তর এর প্রেক্ষিতে কিছু কথা...

১। এখানে আমানত গ্রহণ প্রদান লেনদেন হয় না।

(শুধু মাত্র টেইনারদের সম্মানি প্রদান করে থাকে।

২। এ ট্রেনিং এর ব্যয় ভার হেড অফিস বহন করে থাকে।(হেড অফিসের আয় আসে শাখা হতে, শাখার আয় নহালালের ব্যপারে সবাই বলে থাকেন ১০০% তো সম্ভব না এই ৯০/৯৫% হালাল হয়, আমার জানা মতে শরয়ী হুকুম ১০০% হয় যেমন বেশি নয়, আবার কম ও নয়।)

৩। এখানে ইসলামী ব্যবসা নীতি সব হালাল হারাম ইত্যাদি শিক্ষায় দেয়,(যদিও আমরা জানি শাখা পর্যায় ১০% এর বেশি শরয়ী বিধান মানা হয় না।)

সার কথা সেহেতু ইসলামি ব্যাংক ব্যবস্থা তাই ট্রেনিং একাডেমী হালাল হারাম সুদ শরয়ি সব বিষয়ের শিক্ষা/জ্ঞান/ট্রেনিং দেয়া হয়, (শাখা ইত্যাদি পর্যায় ১০% শরয়ি হুকুম ব্যাংক মানেনা সকল ট্রেইনার এবং সেটা  কর্মকর্তা জানেন মানেন।

1 Answer

0 votes
by (410,480 points)

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।
জবাবঃ-
https://www.ifatwa.info/398নং ফাতাওয়ায় আমরা বলেছিলাম যে,
ব্যাংকের এমন কোনো সেক্টরের কাজ হয়,যাতে  সুদী কাজে জড়িত হতে হয় না।যেমনঃ ড্রাইভার, ঝাড়ুদার, দারোয়ান, জায়েজ কারবারে বিনিয়োগ ইত্যাদি সেক্টর হয়,তাহলে যেহেতু এসবে সরাসরি সুদের সহায়তা নেই তাই এমন সেক্টরে কাজ করার সুযোগ অবশ্যই রয়েছে।

সুপ্রিয় প্রশ্নকারী দ্বীনি ভাই/বোন!
(১)
বর্তমান ইসলামি ধারার ব্যাংকের ট্রেনিং একাডেমীতে চাকুরী করা সরাসরি জায়েয কি না? তা আপাতত স্পষ্টকরে বলতে পারছি না,কেননা তারা ইসলামকে কতটুকু ফলো করে তা আমাদের নিকট অস্পষ্ট।তাছাড়া আমাদের জানামতে তাদের এবং প্রচলিত সুদী ব্যাংকের মধ্যে নামের পার্থক্য ব্যতিত বড় কোনো পার্থক্য নেই।  তবে আমরা এতটুকু বলতে পারি যে,,আপনি তত্ব তালাশ করে দেখবেন যে, তাতে সরাসরি সুদের কোনো সম্পৃক্তা রয়েছে কি না?
যদি তাতে সরাসরি সুদের সম্পৃক্ততা থেকে থাকে, তাহলে এই ট্রেনিং কোর্সে চাকুরী করা জায়েয হবে না।

(২)
সুদের হিসাব শিক্ষা দেওয়া জায়েয হবে না।তবে সুদের হিসাব শিক্ষা দিয়ে বেতনকে আবার অনেকেই হারাম বলেন না।কেননা মূলত শিক্ষার মধ্যের হারামের কিছু নেই।হ্যা, সুদকে প্রয়োগ করা এবং সুদের হিসাবকে প্রয়োগ করাই হারাম।

(৩)
জ্বী, তা হালাল হবে। তবে সুদকে শিক্ষা দেওয়া কখনো জায়েয হবে না।এজন্য এরকম চাকুরীকে পরিহার করতে হবে।


(আল্লাহ-ই ভালো জানেন)

--------------------------------
মুফতী ইমদাদুল হক
ইফতা বিভাগ
Islamic Online Madrasah(IOM)

আই ফতোয়া  ওয়েবসাইট বাংলাদেশের অন্যতম একটি নির্ভরযোগ্য ফতোয়া বিষয়ক সাইট। যেটি IOM এর ইফতা বিভাগ দ্বারা পরিচালিত।  যেকোন প্রশ্ন করার আগে আপনার প্রশ্নটি সার্চ বক্সে লিখে সার্চ করে দেখুন। উত্তর না পেলে প্রশ্ন করতে পারেন। আপনি প্রতিমাসে সর্বোচ্চ ৪ টি প্রশ্ন করতে পারবেন।

বি.দ্র: প্রশ্ন করা ও ইলম অর্জনের সবচেয়ে ভালো মাধ্যম হলো সরাসরি মুফতি সাহেবের কাছে গিয়ে প্রশ্ন করা যেখানে প্রশ্নকারীর প্রশ্ন বিস্তারিত জানার ও বোঝার সুযোগ থাকে। যাদের এই ধরণের সুযোগ কম তাদের জন্য এই সাইট। প্রশ্নকারীর প্রশ্নের অস্পষ্টতার কারনে ও কিছু বিষয়ে কোরআন ও হাদীসের একাধিক বর্ণনার কারনে অনেক সময় কিছু উত্তরে ভিন্নতা আসতে পারে। তাই কোনো বড় সিদ্ধান্ত এই সাইটের উপর ভিত্তি করে না নিয়ে বরং সরাসরি মুফতি সাহেবদের সাথে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। অন্যদিকে প্রতিমাসে একাধিকবার আমাদের মুফতি সাহেবগন জুমের মাধ্যমে সরাসরি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন। সেই ক্লাসগুলোতেও জয়েন করার জন্য অনুরোধ করা গেল। ক্লাসের সিডিউল: fb.com/iomedu.org

Related questions

...